5118

08/04/2021 এম. সাইদুর রহমান খানের অনন্য ভ্রমণ গ্রন্থ ‘অন্য আলোয় অর্ধশতক’

এম. সাইদুর রহমান খানের অনন্য ভ্রমণ গ্রন্থ ‘অন্য আলোয় অর্ধশতক’

রাজটাইমস ডেস্ক

২৬ মে ২০২১ ১৫:৪২

যুক্তরাজ্যস্থ বাংলাদেশের সাবেক হাই-কমিশনার ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য পরম শ্রদ্ধাভাজন প্রফেসর ড. এম. সাইদুর রহমান খানের ‘ অন্য আলোয় অর্ধশতক’ বইটি ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশের উদ্যোগে ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রকাশ পেয়েছে। এটি মূলতঃ লেখকের ১৯৬৯ সন থেকে শুরু করে পরবর্তী ৫০ বছরে দেশের বাইরে বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ সংক্রান্ত কাহিনী নিয়ে একটি মজার বই। ১৯৬৯ সালে পাকিস্তান কেন্দ্রীয় সরকারের 'Central Tribal Publicity Organization' নামক সংস্থার উদ্যোগে মাস্টার্স শেষবর্ষে অধ্যয়নকালে বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো (ঢাকা, রাজশাহী, চট্রগাম) থেকে অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র হিসেবে ৬ জন ও ৩টি কলেজের ৩জন মেধাবী ছাত্র  নিয়ে মোট ৯জনের  প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে ১৫ দিনের জন্য পশ্চিম পাকিস্তানে শুভেচ্ছা সফরে অংশগ্রহণ, এটিই লেখকের প্রথম বিদেশ যাত্রা। এ বিদেশ যাত্রার বর্ণনা নিয়ে গ্রন্থে ১ম  লেখাটি সংযুক্ত হয়েছে।  এরপর ক্রমান্বয়ে গ্রন্থে লেখকের উচ্চ শিক্ষার্থে লন্ডন যাত্রা থেকে শুর করে বিভিন্ন দেশে শিক্ষকতা, বিভিন্ন দেশে কনফারেন্সে অংশগ্রহণসহ ২০০৯ সালের মে মাস থেকে ২০১২ সালের অক্টোবর পর্যন্ত যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডের বাংলাদেশের হাই-কমিশনার (প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা) হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে বিভিন্ন দেশ ভ্রমণের অভিজ্ঞতাবর্ণিত হয়েছে। বাদ যায়নি ইউনেস্কোর ৩০তম সাধারণ সম্মেলন (১৯৯৯ সালের ২৬ অক্টোবর থেকে ১৭ই নভেম্বর পর্যন্ত) যা প্যারিসে অনুষ্ঠিত হয় যেখানে শিক্ষামন্ত্রী এ এস এইচ কে সাদেকের নেতৃত্বে৬ সদস্যের প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে লেখকের যোগদানের কথা। এই সম্মেলনেই বাংলাদেশ সরকারের প্রস্তাব মোতাবেক ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাই-কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে লেখকের সৌভাগ্য হয়েছিল দুবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গী হিসেবে Commonwealth Head of the Government Meeting-CHOGM-এ যোগদানের যার একটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল ত্রিনিদাদের রাজধানী পোর্ট অব স্পেনে (২০০৯ সালের অক্টোবর) আর অন্যটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার পার্থে (২০১১ সালে)। এ সফর সংক্রান্ত অতি গুরুত্বপূর্ণ ২টি লেখা স্থান পেয়েছে গ্রন্থটিতে।

অসাধারণ স্মৃতি শক্তির অধিকারী লেখক এই কাহিনীগুলোতে সাল, তারিখ ও সময় উল্লেখ করে যেভাবে নানা ঘটনা ও অভিজ্ঞতার বর্ণনা সাবলীলভাবে প্রকাশ করেছেন তা যে কোন পাঠকের হৃদয়গ্রাহী হবে। এ কাহিনীগুলো পড়ে অনায়াসে পাঠকের সামনে ভেসে উঠবে বিশে^র বিভিন্ন দেশের সভ্যতা, কৃষ্টি, ঐতিহ্য ও নান্দনিকতা যা সহজেই পাঠকের শিল্প-সাহিত্য ও সংস্কৃতির ভা-ারকে সমৃদ্ধ করবে। আবার কোন কোন লেখার ঘটনার বর্ণনা ও তথ্যগুলো এতটাই নান্দনিক ও শৈল্পিকভাবে উপস্থাপিত হয়েছে যে পাঠক যেন সেই ঘটনাস্থলেই উপস্থিত থেকে অবলীলায় ঘটনাপ্রবাহে মিশে গেছেন। লেখক ICTP (International Centre for Theoretical Physics) এসোসিয়েট মেম্বার হিসেবে ইতালির সৌন্দর্যমন্ডিত ট্রিয়েস্ট শহরে অবস্থানকালে ২০০৩ সালের জুলাই মাসে আমাদের বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তখন বিরোধী দলীয় নেত্রী হিসেবে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি বিষয়ক সংস্থা FAO-তে যোগদানের জন্য রোমে গিয়েছিলেন। সেই ট্রিয়েস্ট শহর থেকে প্রায় ৫৫০ কি.মি. দুরত্ব অতিক্রম করে রোমে এসে লেখক জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে কিভাবে দেখা করেছিলেন এবং সেখানে তাঁর সাথে বিভিন্ন কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন তার বর্ণনাও চমৎকারভাবে ফুটে উঠেছে গ্রন্থে। সেখানেই জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে আলাপচারিতায় লেখক জানতে পারেনখ্যাতনামা পদার্থ বিজ্ঞানী নোবেল পুরস্কার বিজয়ী প্রফেসর আবদুস সালামের প্রতিষ্ঠিত ICTP এর এসোসিয়েট মেম্বার হিসেবে ইতালির ট্রিয়েস্ট শহরে তাঁর স্বামী প্রখ্যাত পদার্থ বিজ্ঞানী ড. ওয়াজেদ মিয়া অবস্থান করার সুবাদে ওখানে ১০ মাস তিনিও ছিলেন।

গ্রন্থে লেখকের ভ্রমণ তালিকায় যেসব দেশ ভ্রমণের বর্ণনা যুক্ত হয়েছে সেগুলো হলো- পশ্চিম পাকিস্তান, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, জাম্বিয়া, নাইজেরিয়া, ইটালী, নেপাল, সুইডেন, দক্ষিণ আফ্রিকা, শারজা, ফ্রান্স, চীন, স্কটল্যান্ড, জার্মানি, অস্ট্রিয়া, ভিয়েতনাম, ত্রিনিদাদ, নরওয়ে, পোল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, অষ্ট্রেলিয়া, বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস, দ্বীপরাষ্ট্র মাল্টা ও ভারত। কোন কোন দেশে একাধিকবার ভ্রমণের বর্ণনা গ্রন্থে সংযুক্ত হয়েছে। গ্রন্থে স্থান পেয়েছে বিদেশ ভমণে লেখকের পারিবারিক ছবিসহ অনেকগুলো দুস্প্রাপ্য ছবি যা দেখলে পাঠকদের মন আনন্দে ভরে যাবে। লেখকের সাথে অধিকাংশ দেশে তার সফরসঙ্গী হয়েছিলেন তাঁর স্ত্রী কুমু রহমান খান, এজন্য অনেক লেখাতেই লেখক তাঁর নাম উল্লেখ করেছেন।বইটি পড়ার অনুরোধ রইলো, বইটি পাওয়া যাবে ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ, ৩৮, বাংলা বাজার, ঢাকা-১১০০ এই ঠিকানায়। এছাড়া rokomari.com/ittadi এর মাধ্যমে অনলাইনেও বইটি সংগ্রহ করা যাবে।

পর্যালোচক পরিচিতিঃ প্রফেসর ও সভাপতি, আইন বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।

 

প্রকাশক ও সম্পাদক : মহিব্বুল আরেফিন
যোগাযোগ: ২৬৮, পূবালী মার্কেট, শিরোইল, ঘোড়ামারা, রাজশাহী-৬০০০
মোবাইল: ০৯৬৩৮ ১৭ ৩৩ ৮১; ০১৭২৮ ২২ ৩৩ ২৮
ইমেইল: [email protected]; [email protected]