করোনা সামলে ওঠার সূচকে বাংলাদেশ বিশ্বে পঞ্চম, দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে

রাজটাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ৭ মে ২০২২ ০৭:০৮; আপডেট: ২৮ জুন ২০২২ ১২:৩৮

ছবি:প্রতিকী

করোনাভাইরাস সামলে ওঠার ক্ষেত্রে বিশ্বের যে দেশগুলো সবচেয়ে ভালো করছে, সেই তালিকায় পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। আর দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সবার উপরে।

বৃহস্পতিবার জাপানভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নিকেই এশিয়া প্রকাশিত ‘নিকেই কোভিড–১৯ রিকোভারি সূচক’–এ এই চিত্র উঠে এসেছে। সূচকে বিশ্বের ১২১টি দেশের মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছে কাতার। এরপরে সংযুক্ত আরব আমিরাত, কম্বোডিয়া ও রুয়ান্ডা। তারপরেই বাংলাদেশের অবস্থান।

করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের ব্যবস্থাপনা, টিকাদান এবং এই মহামারি মোকাবিলায় সামাজিক তৎপরতার ওপর ভিত্তি করে এই সূচক প্রকাশ করা হয়। সূচকে কোনো দেশের যত উপরের দিকে অবস্থান হবে, দেশটি তত ভালোভাবে করোনাভাইরাস সামলে উঠছে বোঝাবে। এখানে তুলনামূলক কম সংক্রমণ ও মৃত্যু হার, ভালো টিকাদান পরিস্থিতি এবং চলাচলে কম বিধিনিষেধের বিষয়গুলো বোঝানো হয়।

এসব বিষয় বিবেচনায় ৮০ পয়েন্ট নিয়ে সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। এই অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের পরে রয়েছে নেপাল, বৈশ্বিকভাবে ষষ্ঠ অবস্থানে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে এর পরে রয়েছে পাকিস্তান। বৈশ্বিকভাবে দেশটির অবস্থান ২৩তম (পয়েন্ট ৭০)। প্রতিবেশী দেশ ভারতের অবস্থান ৭০ তম (পয়েন্ট ৬২ দশমিক ৫)। অর্থনৈতিক দুর্দশায় অস্থিরতার মধ্যে পড়া শ্রীলঙ্কার অবস্থান ৩১তম (পয়েন্ট ৬৮)।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ ও এতে মৃত্যু কমেছে। শুক্রবার সকাল আটটা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৯ জনের করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ সময় কারও মৃত্যু হয়নি। এ নিয়ে টানা ১৬ দিন দেশে করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত দেশে ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৭৬৬ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৮ লাখ ৯৭ হাজার ৪৬ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ২৯ হাজার ১২৭ জনের।
সরকারি হিসাবে দেশের ৭৫ শতাংশের বেশি মানুষকে অন্তত এক ডোজ করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। আর করোনার দুই ডোজ টিকা পেয়েছেন প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষ।




বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top