১৫-১৯ মার্চ শক্তিশালী কালবৈশাখীর আশঙ্কা

রাজটাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ৯ মার্চ ২০২৩ ০৭:০১; আপডেট: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২৩:৫৪

ছবি: সংগৃহীত

আগামী ১৫ মার্চ থেকে ১৯ মার্চ পর্যন্ত বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ওপর দিয়ে শক্তিশালী কালবৈশাখী ঝড়, শিলাবৃষ্টি ও তীব্র বজ্রপাত বয়ে যাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন কানাডার সাসকাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ু বিষয়ক পিএইচডি গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ।

আজ বুধবার (৮ মার্চ) তিনি আরো বলেন, কালবৈশাখী ঝড়ের কারণে দেশের সকল জেলায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে কালবৈশাখী ঝড়ের তীব্রতা সবচেয়ে বেশি থাকবে রাজশাহী, ময়মনসিংহ, সিলেট ও রংপুর বিভাগের জেলাগুলোর ওপর।

সবচেয়ে বেশি বজ্রপাতের ঝুঁকি রয়েছে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের সকল জেলায়, ঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জ, চট্টগ্রাম বিভাগের ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও রাজশাহী বিভাগের রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়। এই সময়ে ঢাকা শহরের ওপর দিয়েও কালবৈশাখী ঝড় অতিবাহিত হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জেলায় ৩০ থেকে ৭০ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাতেরও সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মোস্তফা কামাল পলাশ জানান, যেহেতু সম্ভাব্য কালবৈশাখী ঝড়টি এই মৌসুমের প্রথম কালবৈশাখী ঝড় হবে তাই সম্ভাব্য এই ঝড় থেকে বৃষ্টি অপেক্ষাকৃত কম হবে তবে প্রচণ্ড রকমের ধূলিঝড় হবে এই কালবৈশাখী ঝড়ের সময়। সবচেয়ে বেশি ঝড় হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ১৭ ও ১৮ মার্চ। ১৫ মার্চের পূর্বেই ২/১টি জেলায় বিচ্ছিন্নভাবে কালবৈশাখী ঝড় হতে পারে তবে দেশব্যাপী কালবৈশাখী ঝড় হওয়ার সম্ভাবনা নাই বললেই চলে।

এই সময়ে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে দেশের কৃষকদের জন্য পরামর্শ দিয়েছেন মোস্তফা কামাল পলাশ। তিনি আলু ও সরিষা তুলে ফেলার মতো হলে তা দ্রুত মার্চের ১৪ তারিখে মধ্যে তুলে ফেলা উত্তম হবে বলে জানিয়েছেন। অন্যান্য কৃষি শস্যের জন্য স্থানীয় কৃষি অফিসার বা ব্লক সুপারভাইজারের সাথে পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেয়ারও অনুরোধ জানিয়েছেন।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top