আরএমপির অভিযানে ভুয়া নির্বাচন কমিশনার গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ১৭ জুন ২০২৩ ২৩:২২; আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০২৪ ০২:৩২

সংগ্রহীত

নির্বাচন কমিশনার সেজে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদপার্থীকে প্রতারণা করায় প্রতারণাচক্রের মূল হোতাকে গ্রেপ্তার করেছে আরএমপি পুলিশ। গতশুক্রবার রাতে ঢাকার শেখের টেক হতে আরএমপি’র ডিবির টিম তাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত প্রতারক কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানার পুটিবিলা গ্রামের কবির উদ্দিনের ছেলে গিয়াস উদ্দিন।

গতকাল শনিবার দুপুরে আরএমপির সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান আরএমপির পুলিশ কমিশনার আনিসুর রহমান। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, গত ৮জুন সকাল ৭টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর ২৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আরমান আলীকে মোবাইল ফোনে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার (অব:) মো: আহসান হাবিব খানের পরিচয় দেন এবং নির্বাচন নিয়ে নানান কথাবার্তা বলেন। এরপর ওই প্রতারক ঐদিন পুনরায় আরমান আলী-কে সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে মোবাইল নম্বরে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আওয়ালের সাথে কথা বলতে বলেন। এসময় প্রতারক ওই কাউন্সিলর প্রার্থীর নিকট টাকা দাবী করেন এবং তাদের সাথে যোগাযোগ না করলে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ফলাফল তাঁর বিরুদ্ধে যাবে মর্মে হুমকি প্রদান করে। পরে প্রতারক ঐদিন পুনরায় সকাল সাড়ে ৮ টায় ও সোয়া ১১ টায় মোবাইলে ফোন করলে কাউন্সিলর পদপার্থী আরমান আলী প্রতারণার বিষয়টি অনুধাবন করতে পেরে প্রতারকের ফোন রিসিভ করেননি।

কাউন্সিলর পদপার্থী আরমান আলী ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার গোলাম মোস্তফার উক্ত অভিযোগে পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনার দিনই বোয়ালিয়া মডেল থানায় দুইটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। পরে প্রতারক সংঘবদ্ধচক্রের মূল হোতা গিয়াস উদ্দিনকে ১৬ জুন রাতে ঢাকার শেখের টেক হতে আরএমপি’র ডিবির টিম গ্রেপ্তার করে। এ প্রতারণার দায়ে গিয়াস উদ্দিনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে বোয়ালিয়া মডেল থানায় একটি মামলা দায়েরসহ তার বিরুদ্ধে ঢাকার পল্টন থানায় একটি ও মহেশখালী থানায় দুটি মামলা রয়েছে বলে জানান। এছাড়াও তার সহযোগীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top