১৬০ কোটি টাকা পাচার: ফারমার্স ব্যাংকের বাবুল চিশতীর ১২ বছর কারাদণ্ড

রাজ টাইমস | প্রকাশিত: ৩০ অক্টোবর ২০২৩ ১৫:৫৩; আপডেট: ২৯ মে ২০২৪ ০২:৪১

ছবি: প্রতীকী

ফারমার্স ব্যাংকের ১৬০ কোটি টাকা পাচারের মামলায় প্রতিষ্ঠানটির সাবেক অডিট কমিটির চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতী ওরফে বাবুল চিশতী ও তার ছেলে রাশেদুল হক চিশতীকে ১২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ঢাকার একটি আদালত।

একই মামলায় বাবুলের স্ত্রী রোজী চিশতী ও ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মাসুদুর রহমান খানকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪-এর বিচারক সৈয়দ আরাফাত হোসেন এ আদেশ দেন।

এ সময় বাবুল চিশতী ও রাশেদুল চিশতী আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রোজী চিশতী ও মাসুদুর রহমানের সময় চেয়ে আবেদন খারিজ করে তাদের 'পলাতক' ঘোষণা করেন আদালত।

এই দুজনের সাজা গ্রেপ্তার বা আত্মসমর্পণের দিন থেকে কার্যকর হবে বলে রায়ে জানিয়েছেন বিচারক।

একই রায়ে বিচারক বাবুল চিশতী, রাশেদুল চিশতী ও রোজী চিশতীকে মোট ৩১৯ কোটি টাকা জরিমানা করেন। অনাদায়ে বাবুল ও রাশেদুলকে আরও দুই বছর এবং রোজীকে আরও এক বছর কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে।

আর মাসুদুর রহমানকে আদালত ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেন, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দেন।

বিচারক পর্যবেক্ষণে বলান, 'বাবুল ও তার পরিবারের সদস্যরা ফারমার্স ব্যাংকের টাকা পাচারের সঙ্গে জড়িত।'

আসামিদের অর্জিত স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার জন্যও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন আদালত।

২০১৮ সালের ১০ এপ্রিল বাবুল চিশতীসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় ১৬০ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে মামলা করে দুদক।

 



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top