ঢাকায় আওয়ামী লীগের সমাবেশ: চরম ভোগান্তিতে পড়ে নগরবাসী

রাজটাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ১৮ আগস্ট ২০২২ ০৮:০৯; আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৮:২৭

সমাবেশকে ঘিরে সৃষ্ট জ্যাম।

ঢাকায় আওয়ামী লীগের সমাবেশকে ঘিরে দুপুর থেকে ১৭ আগস্ট দুপুর থেকে ব্যাহত হতে শুরু করে যান চলাচল। ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সারা দেশে একযোগে বোমা হামলার প্রতিবাদে বুধবার বিকেলে সমাবেশ ও মিছিল করেছে আওয়ামী লীগ। খবর টিবিএসের।

রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সামনের সড়কের পাশে সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ।

সমাবেশে যোগ দিতে দুপুর থেকেই আসতে শুরু করেন মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এতে করে দুপুর থেকেই সড়কে যানবাহনের স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হতে থাকে। বেলা ৩টার দিকেই শাহবাগ থেকে প্রেসক্লাব পর্যন্ত সড়কে সড়কে যান চলাচল থমকে যায়।

সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানকসহ দলের কেন্দ্রীয় ও মহানগরের নেতারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

দলটির নেতাকর্মীরা এসময় একের পর এক মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে যেতে থাকেন। বিকেল ৫টা নাগাদ যানজট ব্যাপক আকার ধারণ করলে ভোগান্তির শিকার হয়েছেন অফিসফেরত মানুষ।

সমাবেশের কারণে কাকরাইল থেকে মৎস্য ভবনের সড়কও বন্ধ করে দেয়া হয়। এতে গুলিস্তান থেকে ধানমন্ডিগামী যানগুলোকে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের সামনে দিয়ে ঘুরে যেতে হয়েছে।

এসময় অনেকে হেঁটেই গন্তব্যের দিকে রওনা হতে বাধ্য হন। সিরাজুল ইসলাম নামের এক পথচারী জানান, তিনি যাবেন শাহবাগ, গত এক ঘণ্টা ধরেই হাঁটছেন। তার মতে, 'আসলে এ দেশের রাজনীতিবিদেরা সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের কথা ভাবেন না। তাই এটা নতুন কিছু নয়।'

গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, যানজটের কারণে মালিবাগ থেকে কাকরাইল মোড়ে আসতে ১ ঘণ্টার বেশি সময় লেগেছে। মালিবাগ, মগবাজার ও বাড্ডা এলাকায় গাড়ি না থাকায় সড়কের পাশে শত শত মানুষকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। যে কয়টি গাড়ি চলেছে, সেগুলোতে ছিল উপচেপড়া ভিড়।

মূল খবরের লিঙ্ক



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top