চট্টগ্রামকে বিদায় করে কোয়ালিফায়ারে বরিশাল

রাজটাইমস ডেস্ক: | প্রকাশিত: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৭:২৮; আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ১১:১০

ছবি: সংগৃহীত

বিপিএলের এলিমিনেটর ম্যাচের ফলাফল চট্টগ্রামের স্বল্প রানের ইনিংসের পরেই অনুমিত হয়ে গিয়েছিল। এলিমিনেটরে বলিশালকে হারাতে হলে অবিশ্বাস্য কিছুই করে দেখাতে হতো চট্টগ্রামের বোলারদের। সেই লক্ষ্যে অল্পতেই সৌম্যকে ফিরিয়ে তারা এগোচ্ছিলও সেদিকে তবে পরে ১ রানে থাকা তামিমের ক্যাচ ফেলার পর আর ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি চট্টগ্রাম ফলে এলিমিনেটরেই চট্টগ্রামকে বিদায় করে কোয়ালিফায়ারে নাম লেখাল তামিমের বরিশাল।

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিপিএলের এলিমিনেটরে টস জিতে চট্টগ্রামকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৩৫ রানের বেশি করতে দেয়নি বরিশাল। জবাবে অধিনায়ক তামিম ও কাইল মায়ার্সের অর্ধশতকে ৭ উইকেটের সহজ জয় তুলে নেয় বরিশাল।

সহজ লক্ষ্য তাড়ায় শুরু থেকে তাই নির্ভার হয়ে খেলতে দেখা যায় তামিমদের। যদিও ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে নেমে ব্যর্থ হন সৌম্য সরকার। ২ বল খেলে রানের খাতা খোলার আগেই শুভাগত হোমের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। পরের ওভারে ১ রান করে ফিরতে পারতেন তামিম ইকবালও তবে সৈকত আলী তার সহজ ক্যাচ তালুবন্দী করতে পারেননি।

শুরুর ধাক্কায় চাপ না নিয়ে ওয়ান ডাউনে নেমে ঝড় তুলতে থাকেন মায়ার্স। তার সঙ্গে যোগ দেন তামিম। চট্টগ্রামের বোলারদের তুলোধুনো করে ৯ ওভারের মধ্যে তারা দলকে এনে দেন ৯৮ রান। পাওয়ার প্লেতেই বরিশাল তোলে ৭৩ রান।

মায়ার্স ও তামিমের মধ্যকার ৯৮ রানের জুটি ভাঙ্গে বিলাল খানের বলে ২৬ বলে ৫ ছক্কা ও ৩ চারে ৫০ রান করা মায়ার্স কট বিহাইন্ড হন। এরপর মিলার নেমে ১৩ বলে ১৭ রানের ইনিংস খেলে রোমারিও শেফার্ডের শিকার হন। অপরপ্রান্ত আগলে রেখে ফিফটি তুলে নেন অধিনায়ক তামিম। শেষ পর্যন্ত ৪৩ বলে ৯ চারের মারে ৫২ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। শেষদিকে নেমে ৫ বলে ৬ রানে অপরাজিত থাকেন মুশফিক।

আর এতে ৭ উইকেটের বড় জয়ে বিপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করে বরিশাল। আর দশম আসরে যাত্রা শেষ হলো চট্টগ্রামের। সন্ধ্যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও রংপুর রাইডার্সের মধ্যকার লড়াইয়ে যে দল হারবে, তাদের প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে তামিমরা। ২৮ ফেব্রুয়ারি হবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারের লড়াই। দুই কোয়ালিফায়ারের জয়ী দল শিরোপার লড়াইয়ে নামবে আগামী ১ মার্চ।

এদিন টস হেরে ব্যাট করতে নেমে সুবিধা করতে পারেনি চট্টগ্রাম। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রান সংগ্রহ করে শুভাগত হোমের দল। আসরে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা তানজিদ তামিম এদিন ৩ বলে ২ রান করে আউট হন। দুই বিদেশি জশ ব্রাউন ও টম ব্রুস জ্বলে ওঠার বার্তা দিলেও ক্রিজে স্থায়ী হতে পারেননি। ব্রাউন ২২ বলে ৩৪ আর ব্রুস ১১ বলে ১৭ রান করে আউট হন। অধিনায়ক শুভাগতও দলের হয়ে কার্যকরী ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হয়েছেন। ১৬ বলে ২৪ রান আসে তার ব্যাট থেকে। বরিশালের পক্ষে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, কাইল মায়ার্স ও ওবেদ ম্যাক’কয়।




বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top