বাংলাদেশের ব্যাটাররা কখন জেগে উঠবেন, জানালেন শান্ত

রাজ টাইমস ডেস্ক : | প্রকাশিত: ১৭ জুন ২০২৪ ২০:১৮; আপডেট: ২০ জুলাই ২০২৪ ০১:২৮

ছবি: সংগৃহীত

চলতি বিশ্বকাপের অধিকাংশ ম্যাচগুলো হচ্ছে বেশ স্লো উইকেটে, যেখানে রান করতে হিমশিম খাচ্ছেন তারকা ব্যাটাররাও। তবে বাংলাদেশের ব্যাটিং ইউনিট, বিশেষ করে টপ অর্ডার ধারাবাহিকভাবে রান করতে ব্যর্থ হচ্ছেন।

এরপরও সুপার এইটে যাওয়ার বড় কৃতিত্ব বোলারদেরই। এতে খুশি হলেও অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তও মানছেন, এভাবে বারবার জেতা সম্ভব হবে না।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে মাত্র ১২৪ রান করেও জেতা বাংলাদেশ পরের ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্যর্থ হয় ১১৩ রান তাড়া করতে। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ব্যাটাররা কিছুটা ছন্দে থাকলেও ওই ম্যাচেও জেতান মূলত বোলাররাই। আর আর সবশেষ নেপালের বিপক্ষে বোর্ডে মাত্র ১০৬ রান নিয়েই জিতিয়েছেন তানজিম-মুস্তাফিজুররা।

নেপাল ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে বোলারদের প্রশংসায় ভাসালেও ব্যাটিং নিয়ে চিন্তা ফুটে উঠল শান্তর কন্ঠে। তিনি বলেন, 'আমি তো আশা করি প্রতিদিন বোলাররা জেতাবে, তবে এটা তো আসলেই সম্ভব না বোলাররা জিতিয়ে দিবে।

তবে ব্যাটসম্যানদেরও দায়িত্ব আছে। তারা চেষ্টা করছে, তবে হচ্ছে না। তবে সত্যি বলতে আমার মনে হয় এটা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এখানে হয়ত ১৪০-১৫০ রান করার মতো উইকেট ছিল, যা আমরা করতে পারিনি।'

অধিনায়ক হিসেবে শান্ত করছেন দারুণ। এই প্রথম বিশ্বকাপের মূল পর্বে বাংলাদেশ গ্রুপ পর্বে জিতেছে তিন ম্যাচ। প্রথম আসরের পর আবার জায়গা করে নিয়েছে সুপার এইটে৷ তবে তাতে আড়াল হচ্ছে ব্যাটার শান্তর ফর্ম। রানের জন্য ভীষণ সংগ্রাম করতে হচ্ছে তাকে। অভিজ্ঞ ব্যাটার লিটনও পারছেন বা প্রত্যাশা মেটাতে। ফলে চাপ বাড়ছে মিডল অর্ডারের ওপর।

সুপার এইটে এই চিত্রে পরিবর্তন আসবে, সেই আশায় আছেন শান্ত। টাইগার অধিনায়ক বলেন, 'ব্যাটিং অবশ্যই চিন্তার কারণ। এভাবে ব্যাটিং করলে আমার মনে হয় না দলের জন্য তা ভালো দিক। শুরুটা ভালো হচ্ছে না, শেষের ব্যাটাররা ফিনিশিং দিতে পারছে না।

আমারের এখান থেকে বেরিয়ে আসতে হয়। তবে সেই পরিকল্পনা সবসময়ই হয়, যে ভুলগুলো হয়েছে সেটা যেন সুপার এইটে যত কম করা যায়, সেই চেষ্টা থাকবে এটা বলতে পারি।'



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top