তীব্র খরায় জিম্বাবুয়েতে জাতীয় দুর্যোগ ঘোষণা

রাজটাইমস ডেস্ক: | প্রকাশিত: ৪ এপ্রিল ২০২৪ ১৯:৪১; আপডেট: ১৬ জুন ২০২৪ ০৯:০৭

ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘদিন ধরে তীব্র খরার কবলে পড়েছে জিম্বাবুয়ে। দেশটিতে খরা পরিস্থিতির কারণে জাতীয় দুর্যোগ ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (০৪ এপ্রিল) দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগওয়া বলেন, দেশটির এখন দুই বিলিয়ন ডলার প্রয়োজন। লাখ লাখ ক্ষুধার্ত মানুষের সহায়তার জন্য তিনি এ পরিমাণ অর্থের প্রয়োজনীয়তার কথা জানিয়েছেন। আফ্রিকার এ দেশটিতে বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় প্রায় অর্ধেক ফসল নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, জিম্বাবুয়ের কোনো নাগরিককে ক্ষুধায় আত্মহত্যা বা মারা যেতে হবে না। এজন্য আমি দেশজুড়ে জাতীয় দুর্যোগ ঘোষণা করছি।

দেশটিতে খাদ্যশস্যের ঘাটতির কারণে ইতোমধ্যে দাম বেড়ে গেছে। এতে করে প্রায় ২৭ লাখ মানুষকে ক্ষুধার মুখোমুখি হতে হবে। এ ছাড়া সম্প্রতি তীব্র খরার কারণে প্রতিবেশী দেশ জাম্বিয়া এবং মালাউ জাতীয় দুর্যোগের ঘোষণা দিয়েছে।

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি) বলছে, বর্তমানে এ অঞ্চলে এক কোটি ৩৬ লাখ মানুষ সংকট স্তরের খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার মুখোমুখি হচ্ছেন। আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলীয় দেশগুলোর চলমান এ খরা গত কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ হওয়ার আশঙ্কাও করেছেন অনেকে।

জিম্বাবুয়ে ইতোমধ্যে খাদ্যমূলের কারণে উচ্চ মুদ্রস্ফীতির শিকার হয়েছে। দেশটি এখন আন্তর্জাতিক বাজারে পর্যাপ্ত ভুট্টা পেতে আঞ্চলিক লড়াইয়ে যোগ দিয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলে রুটির ঝুড়ি হিসেবে একসময়ে পরিচিত ছিল জিম্বাবুয়ে। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ফসল ও গবাদিপশুর ক্ষয়ক্ষতির পাশাপাশি তীব্র খরার সম্মুখীন হয়েছে দেশটি। ১৯৯২ সালে দেশটিতে সবচেয়ে তীব্র খরা দেখা দিয়েছিল। ওই সময়ে দেশটির গবাদি পশুর এক চতুর্থাংশই মারা গিয়েছিল।




বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top