যুক্তরাষ্ট্রে ইউক্রেন, ইসরাইল ও তাইওয়ানের জন্য ৯,৫০০ কোটি ডলারের সাহায্য অনুমোদন

রাজ টাইমস ডেস্ক : | প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২৪ ১০:০৭; আপডেট: ২৬ মে ২০২৪ ১৭:৩৪

ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন কংগ্রেসের ইউক্রেন, ইসরাইল ও যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য মিত্র দেশের জন্য ৯,৫০০ কোটি ডলারের প্রস্তাবের ওপর ভোটের সময় ইউক্রেনের সমর্থকরা ওয়াশিংটনের ক্যাপিটলের বাইরে সমাবেশ করে

শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদ দ্বি-পক্ষীয় সমর্থনে ইউক্রেন, ইসরাইল ও তাইওয়ানের জন্যচার অংশে একটি প্রস্তাব পাশ করেছে। কংগ্রেসে দীর্ঘ , কঠিন পথ ধরে অনুমোদনের পথে এলো এই আইন।

এই আইনের মধ্যে রয়েছে মস্কোর আক্রমণের বিরুদ্ধে কিয়েভের চলমান যুদ্ধের জন্য ৬,১০০ কোটি ডলার, ইসরাইলের জন্য এবং গাজাসহ সংঘর্ষ-জর্জরিত অঞ্চলে অসামরিক লোকজনের জন্য মানবিক সাহায্য বাবদ ২,৬০০ কোটি ডলার এবং ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের জন্য ৮,০০ কোটি ডলার।

প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার লুইসিয়ানা রাজ্যের রিপাবলিকান মাইক জনসন এ প্রস্তাবটি এমনভাবে তৈরি করেন, যাতে প্রতিটি প্রস্তাব পাস হলে সেগুলোকে একত্রিত করা যায়। এর লক্ষ্য হচ্ছে, কোনো একটি অংশের বিরোধিতা করে যাতে সমগ্র প্রস্তাবকে নষ্ট করা না হয়।

শনিবার এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, 'আজ আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা স্বার্থকে এগিয়ে নিতে উভয় দল ভোট দিয়েছেন এবং এতে বিশ্বের মঞ্চে আমেরিকান নেতৃত্ব সম্পর্কে একটা স্পষ্ট বার্তা পাঠানো হলো।এই কঠিন বিভাজনের সময়ে তারা ইতিহাসের আহ্বানে একত্রে সাড়া দিতে এগিয়ে আসেন এবং যে আইন নিশ্চিত করতে আমি কয়েক মাস ধরে লড়ে আসছি তাকে জরুরি ভিত্তিতে অনুমোদন করেন।'

তিনি বলেন, 'আমি সিনেটকে বলবো তারা যেন তাড়াতাড়ি এই থোক প্রস্তাবটি আমার কাছে পাঠান যাতে করে আমি এতে স্বাক্ষর করে এটিকে আইনে পরিণত করতে পারি এবং আমরা যুদ্ধক্ষেত্রের প্রয়োজন অনুযায়ী দ্রুতই ইউক্রেনে অস্ত্রশস্ত্র ও সাজ সরঞ্জাম পাঠাতে পারি।'

ডেমক্র্যাটিক দলের সংখ্যাগরিষ্ঠসম্পন্ন সিনেট আগামী সপ্তাহের শুরুতেই এই প্রস্তাবের ওপর কাজ করবে এবং তার পর এটিকে স্বাক্ষরের জন্য প্রেসিডেন্ট বাইডেনের দফতরে পাঠাবে।

নিউ ইয়র্কের ডেমক্র্যাট সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা চাক শুমার শনিবার এক বিবৃতিতে নিশ্চয়তা দিয়েছেন যে সিনেট 'মঙ্গলবার বিকেলে প্রথম ভোট দিয়ে সম্পুরকতার কাজ সম্পন্ন করবে।'

তিনি আরো বলেন, 'ইউক্রেনে আমাদের বন্ধুদের, ন্যাটোতে আমাদের মিত্রদের, ইসরাইলে আমাদের মিত্রদের এবং গোটা বিশ্বের অসামরিক লোকজন যাদের ত্রাণের প্রয়োজন : আপনারা নিশ্চিত থাকবেন আমেরিকা তা আপনারে আবার দেবে।'

যে চারটি পদক্ষেপ নেয়া হয় তার মধ্যে শনিবার প্রথমেই পাস হয় সামাজিক মাধ্যম টিকটকের ওপর নতুন বিধিনিষেধ আরোপ করা একটি প্রস্তাব যা ৩৬০-৫৮ ভোটে অনুমোদন লাভ করে। ওই প্রস্তাবে বলা হয়েছে যে টিকটকের মূল চীনা কোম্পানি বাইটেডেন্সকে এক বছরের মধ্যে নিজের মালিকানা বিক্রি করতে হবে নইলে তা যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ হবে। এই প্রস্তাবে রাশিয়া ও ইরানের উপর নতুন নিষেধাজ্ঞা বারোপ করার অনুমতি প্রেসিডেন্টকে দেয়া হয়েছে।

উভয় দলের ৩৮৫-৩৪ ভোটে দ্বিতীয় যে প্রস্তাবটি পাশ হয় তা হলো ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে কোটি কোটি ডলারে সহায়তা প্রদান। ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের জন্য ৮,০০ কোটি ডলারের এই প্রস্তাবের লক্ষ্য হচ্ছে ডুবোজাহাজের কাঠামোতে এবং সামরিক অর্থায়নের মাধ্যমে বিনিয়োগ করে চীনের বিরোধীতা করা।

তৃতীয় যে গুরুত্বপূর্ণ ৬,১০০ কোটি ডলারের ত্রাণ প্যাকেজ অনুমোদন করা হয় সেটি হচ্ছে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনকে সহায়তা দান। এই প্রস্তাবটি ৩১১-১১২ ভোটে অনুমোদন পায়।

এই প্রস্তাবটি অনুমোদিত হওয়ায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি কংগ্রেসকে ধন্যবাদ জানান।

শনিবার সর্বশেষ যে প্রস্তাবটি পাস হয় তা হলো ইসরাইলের জন্য ২,৬০০ কোটি ডলারের অনুমোদন যাতে মানবিক সহয়াতা বাবদ ৯১০ কোটি ডলার।

এ সপ্তাহে আরো আগের দিকে বাইডেন এই সহায়তা প্যাকেজের বিষয়টি পুনঃনিশ্চিত করেন।

সূত্র : ভয়েস অব আমেরিকা



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top