ফিলিপাইনে বন্যা-ভূমিধস: ৩১ জনের মৃত্যু

রাজ টাইমস ডেস্ক : | প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০২২ ০৫:০৪; আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০২৪ ০২:১৮

ছবি: সংগৃহিত

ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলের দিকে অগ্রসরমান ক্রান্তীয় ঝড় ‘নালগে’র ফলে সৃষ্ট ভূমিধস ও বন্যায় এখন পর্যন্তর ৩১ জনের মৃত্য হয়েছে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (২৮ অক্টোবর) দেশটির দূর্যোগ প্রতিরক্ষা বিভাগ এ তথ্য নিশ্চিত করে। খবর রয়টার্সের।

দেশটির মিন্দানাও দ্বীপের স্বায়ত্তশাসিত এলাকা বাংসোমরোর সরাষ্ট্রমন্ত্রী নাগুইব সিনারিম্বো এফপি নিউজকে জানান, নিহতদের মধ্যে ১০ জনই বন্যাকবলিত মিন্দানাও দ্বীপের দাতু ব্লাহ সিনসুয়াতের বাসিন্দা।

তাছাড়া, উদ্ধারকারীরা দাতু ওদিন সিনসুয়ার পাশবর্তী এলাকায় উদ্ধারকাজ পরিচালনার সময় কোটাবাটো শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছেন। ধারণা করা হচ্ছে ওই এলাকায় আর কারও প্রাণহানি ঘটেনি। তবে সেনাবাহিনীর উদ্ধারকারী দল ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

দেশটির হাজার হাজার মানুষ যখন ‘অল সোলস ডে’ পালন করার প্রস্তুতি নিচ্ছিল, ঠিক তখনই এ দুর্যোগ দেখা দিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে বেশ কয়েকটি ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছে ও অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে বেশকিছু বন্দরের কার্যক্রম অচল হয়ে পড়েছে।

দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, বৃহস্পতিবার (২৩ অক্টোবর) থেকে ঘূর্ণিঝর নালগের কারণে মিন্দানাওতে ভারি বৃষ্টিপাত শুরু হয়, যার ফলে হঠাৎ বন্যা ও ভূমিধ্বস দেখা দেয়।

বেসামরিক প্রতিরক্ষা বিভাগ বলছে, শনিবার (২৮ অক্টোবর) ও রোববারও (২৯ অক্টোবর) দুর্যোগের আশঙ্কা থাকায় এখন পর্যন্ত প্রায় পাঁচ হাজার মানুষকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

আবহাওয়া ব্যুরোর তত্য অনুযায়ী, ঘূর্ণিঝড় নালগের গতিবেগ ঘণ্টায় ৭৫ কিলোমিটার (৪৭ মাইল)। শুক্রবার সকাল থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নালগে আরও বেশি ঘনীভূত হবে। এতে ক্ষয়ক্ষতি অব্যাহত থাকতে পারে।

ফিলিপাইনে ভূমিধস ও বন্যাপ্রবণ দেশ। ক্রান্তীয় জলবায়ুর কারণে এখানে বছরে গড়ে ২০টি টাইফুন আঘাত হানে।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top