রাজশাহীতে 'শিশু বিষয়ে যোগাযোগের ভূমিকা' শীর্ষক অভিজ্ঞতা-বিনিময়

রাবি প্রতিনিধি: | প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২২:৪২; আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০২২ ০৪:৫২

 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সেন্টার ফর সোশ্যাল ইনোভেশন এন্ড সাসটেইনিবলিটি (সিএসআইএস)-এর উদ্যোগে 'শিশু বিষয়ে যোগাযোগের ভূমিকা' শীর্ষক একটি অভিজ্ঞতা-বিনিময় প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়েছে।

  • মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টা থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত রাজশাহীর হোটেল এক্সে এটি অনুষ্ঠিত হয়।

এতে দ্বিতীয় পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনিসেফ বাংলাদেশের চিফ অব কমিনিউকেশন ইয়ানি গ্যামিং। ইউনিসেফের রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের অফিস ইনচার্জ সোনিয়া আফরিন, সোশ্যাল এন্ড বিহেভিয়ার চেইঞ্জ অফিসার মনজুর আহমেদ, ওয়াশ অফিসার রুহুল আমিন প্রমুখ।
এ ছাড়া রাজশাহীসহ উত্তরবঙ্গের প্রভাবশালী গণমাধ্যমের সাংবাদিক, সিএসআইএসের স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করা শিক্ষার্থীবৃন্দও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সিএসআইএসের উদ্যোগে ও ইউনিসেফের সহযোগিতায় ২০২১ ও ২০২২ সালের বিভিন্ন সময়ে সিএসআইএসের ফোরাম হিসেবে কাজ করা নর্থ বেঙ্গল ইয়ুথ ফোরাম ও নর্থ বেঙ্গল জার্নালিস্টস ফোরামের উদ্যোগে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৬ জেলায় দুটি সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালিত হয়।
করোনা ভাইরাস ও বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে পরিচালিত দুটি সচেতনতামূলক কর্মসূচিতে স্বেচ্ছাসেবকেরা বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে করোনা ভাইরাস থেকে নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে ও বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে উদ্বুদ্ধ করেন।

এই দুটি কর্মসূচি নিয়ে অর্জিত অভিজ্ঞতা বিনিময়ের জন্যই আজকের অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয়েছিল।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও সিএসআইসের গভর্নিং কাউন্সিলের (জিসি) অন্যতম সদস্য ড. নাজিয়াত হোসেন চৌধুরীর সঞ্চালনায় সেমিনারে সিএসআইএস-এর ডিরেক্টর ও রাবি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রফেসর ড. প্রদীপ কুমার পাণ্ডে কোভিডকালীন ও কোভিড-পরবর্তীকালে গবেষক, সাংবাদিক এবং ইয়ুথ ফোরামের কার্যক্রম উপস্থাপন করেন। এ ছাড়া ওই কর্মসূচি দুটি নিয়ে নির্মিত দুটি তথ্যচিত্র অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত হয়।

প্রধান অতিথি ইয়ানি গ্যামিং বলেন, "শিশু সুরক্ষা, শিশু অধিকার নষ্ট করতে পারে এমন বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে যোগাযোগ বড় ভূমিকা পালন করে। যোগাযোগের একটি মাধ্যম হিসেবে মিডিয়া সচেতনতা বাড়াতে কাজ করে। জাতীয় গণমাধ্যমকে এই জাতীয় কার্যক্রমে সক্রিয় ভূমিকা রাখার পাশাপাশি স্থানীয় গণমাধ্যম, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেও ব্যবহার করা জরুরি।"

সেমিনারে উপস্থিত ১৩ জন সাংবাদিক ও কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া ২৭ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে থেকে বেশ কয়েকজন ইউনিসেফের প্রতিনিধিদের সামনে অর্জিত অভিজ্ঞতা, চ্যালেঞ্জগুলো উপস্থাপন করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সিএসআইএসের জিসি সদস্য গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রফেসর ড. মোজাম্মেল হোসেন বকুল (সাজ্জাদ বকুল), ড. এবিএম সাইফুল ইসলাম, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. এ কে এম মাহমুদুল হক, লোক প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক গোলাম রব্বানী অংশ নেন।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top