বাবাকে না পেয়ে ছেলেকে অপহরণ,

যাবজ্জীবনসহ দুইজনের ১৪ বছর কারাদণ্ড

রাজ টাইমস | প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০২৩ ১৯:৫০; আপডেট: ২১ মে ২০২৪ ২৩:৪৫

ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহীর বাঘা থানায় দায়ের করা শিশু অপহরণ মামলায় পৃথক ধারায় একজনকে যাবজ্জীবনসহ দুই আসামিকে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া অপর দুই আসামি খালাস পেয়েছেন।

একইসঙ্গে তাদের ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মুহা. হাসানুজ্জামান এই রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার তাঁতারপুর মণ্ডলপাড়া এলাকার মকবুল হোসেনের ছেলে রাজিবুল ইসলাম (২৮) ও একই উপজেলার গোবিন্দপুর এলাকার কামরুল ইসলামের ছেলে মিজানুর রহমান (২৩)।

আদালত সূত্রে জানা যায়, দণ্ডপ্রাপ্ত চারঘাটের মিজানুর রহমানকে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ে পৃথক দুটি ধারায় যাবজ্জীবন ও ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং রাজিবুল ইসলামকে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। একইসঙ্গে তাদের ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত। অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রাজশাহী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত-২ এর পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট শামসুন নাহার মুক্তি জানান, মামলার বাদী মো. আজাদের কাছে মুরগি বিক্রির ১ লাখ ১৭ হাজার টাকা পাওনা ছিল আসামি পাইকারী মুরগি ব্যবসায়ী মিজানুর রহমানের। ২০১৯ সালের ১৬ মে টাকা আদায় করতে গিয়ে বাঘা বাজারে আজাদকে না পেয়ে তার ১১ বছর বয়সী শিশু সন্তান সুইটকে অপহরণ করেন মিজানুর। পরে আজাদের স্ত্রীর নিকট মুক্তিপণ দাবি করেন তিনি। এতে আজাদ বাদী হয়ে বাঘা থানায় মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ তদন্ত শেষে ৪ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট প্রদান করে। শুনানি, সাক্ষ্য ও জেরা শেষে আদালত চার আসামির মধ্যে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের পৃথক দুটি ধারায় মিজানুর রহমানকে যাবজ্জীবন ও ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও রাজিবুল ইসলামকে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। বাকি দুই আসামিকে খালাস প্রদান করা হয়।

রায় ঘোষণাকালে সকল আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন বলেও জানান অ্যাডভোকেট শামসুন নাহার মুক্তি।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top